শায়খ আলী আল-খুদাইর

শায়খের রচনাবলী

আলী বিন খুদাইর বিন ফাহাদ আল-খুদাইর। তিনি ১৩৭৪ হিজরীতে রিয়াদে জন্মগ্রহণ করেন। কাসীমে অবস্থিত জামিয়াতুল ইমাম থেকে ১৪০৩ হিজরীতে উসূলুদ – দ্বীনে ডিগ্রী নিয়ে বের হন।

উস্তাদগন ও তাঁদের থেকে ইলম অর্জনঃ

যৌবনের শুরু লগ্ন থেকেই তিনি ইলম অর্জন শুরু করেন।আর এর মাঝেই তিনি মাধ্যমিক শ্রেণীতে উত্তীর্ণ হয়ে পড়েন। সর্বপ্রথম তিনি শায়েখ আব্দুর রউফের ( আল্লাহ তাঁর জান্নাতকে আরামদায়ক ও প্রশস্ত করে দিন) কাছে কুরআনে কারীমের তিলাওয়াত এবং তাজবীদ শিক্ষা করেন। তাঁর প্রাথমিক উস্তাদদের মাঝে আরো হলেন,শায়েখ আলী বিন আব্দুল্লাহ আল- জর্ডানি, শায়েখ মুহাম্মদ বিন মুহাইযি,যামানার কাজী শায়েখ মুহাম্মদ বিন ইবরাহিম। আল্লাহ এদের ও তাঁর সমস্ত উস্তাদদের জান্নাতকে শান্তিময় ও প্রশস্ত করে দিন! আমজা।

১। আল্লামা মুজাহিদ হামুদ বিন আক্বলা আশ- শায়ীবি। তাঁর কাছে তাওহীদ,আক্বীদা সহ অন্যান্য শাস্রে ইলম অর্জন করেন।

২। শায়েখ মুজাহিদ মুহাম্মদ বিন সালেহ আল- মনসূর।উনার কাছে ১৪০৯ থেকে ১৪১৩ হিজরী পর্যন্ত তাওহীদ,আক্বীদা,ফিকহ,ফারায়েজ, হাদীস ও নাহু শাস্রে ইলম লাভ করেন।

৩। শায়েখ মুহাম্মদ বিন সালেহ উসাইমিন।তাঁর কাছে ১৪০০ থেকে ১৪০২ হিজরী পর্যন্ত ইসলামি ফিকহে জ্ঞান লাভ করেন।

৪।আব্দুল্লাহ বিন মুহাম্মদ বিন আব্দুল্লাহ হাফিজাহুল্লাহ।হুসাইন রাঃ এর বংশধর। উনার কাছে ফিকহে ইলম লাভ করেন।

৫। শায়েখ মুহাম্মদ বিন সুলাইমান আলীত।তাঁর কাছে ওকী রহঃ এর কিতাবুয যুহুদ এবং ইমাম আহমাদ ইবনে হাম্বল রহঃ এর কিতাবুল ওয়ারয়ী পড়েছেন। তিনি তাঁর শিক্ষাগত জীবনে প্রায় সব বিজ্ঞ আলেমদের কাছ থেকেই ইলম অর্জন করেছেন।

শিক্ষাগত জীবনঃ

তাঁর কয়েকটি হালকা ও দরসগাহ ছিল,যেখানে তিনি তাওহীদ,আক্বীদা ও ফিকহ বিষয়ে শিক্ষা দিতেন। ১৪০৫ হিজরীতে তিনি সর্বপ্রথম বিভিন্ন মসজিদে দরস দেওয়া শুরু করেন। তখন ছাত্র সংখ্যা হয়ত পাঁচ জন করে হবে।

প্রায় প্রতিদিনই ইশা এবং ফজরের পর দরস দিতেন। এভাবে বাহিরে ভিতরে অনেক ছাত্রই উনার কাছে ইলম শিখতেন।তাঁদের মধ্য থেকে অনেকেই কাজী,ডাক্টার,শিক্ষক, দায়ী হয়েছে।সুযোগ হলে হয়তো তাঁদের নাম উল্লেখ করব। আর সর্বশেষ ক্রুসেড হামলাগুলোর পর শায়েখ কাফের,ইহুদী ও ক্রুসেডদের বিরুদ্ধে জিহাদের ঘোষনা, ফতোয়ার মাধ্যমে মুসলমানদের উদ্ধুদ্ধ করতে শুরু করলেন।

আর এই জন্যই শায়েখ সহ আরো অনেক দায়ী যেমন শায়েখ নাসির ফাহাদ,আহমাদ খালেদ জেলখানায় আবদ্ধ হন এবং নির্যাতনের শিকার হন।

কিতাব সমূহঃ

তাওহীদ ও ফিকহ সম্পর্কে তার অধিকাংশ সংকলন ছাত্র ও অন্যান্যদের মাঝে নোট আকারেই রয়ে গেছে।ছাপার মুখ দেখেনি।

তবে উনার প্রকাশিত কিতাবগুলোর মধ্যে রয়েছে আমাদের সামনে এই কিতাবটি ” كتاب الجمع و التجريدـ كتا ب التوضيح و التتمات.كتاب الحقاءق. كتاب المحكي فيه و الإجماع.الو جازة. سلسلة الأجراء

এ ছাড়াও আরো অনেক রিসালা ও ফতোয়া রয়েছে।

আমরা আল্লাহর কাছে দোয়া করি তিনি তাঁকে এবং সমস্ত খোদাভীরু আলেমদের দ্রুত মুক্তির ব্যবস্থা করুক,তাঁদের উপর রহম করুক,শাস্তি লাগব করে দিক, ধৈর্য্য ধারণের ক্ষমতা দিক।

ঈমান ও দ্বীনের উপর তাঁদের অবিচল রাখুক।তাঁদের এবং পরিবার- পরিজনকে ক্ষমা করুক,তাঁদের ফেফাজত করুক! ইসলাম ও মুসলমানদের সাহায্য করুক! জিহাদ ও মুজাহিদদের সম্মানিত করুক আর কাফেরদের লাঞ্চিত করুক!আমিন এটা শায়েখের এক ছাত্র লিখেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *