সংশয়ঃ শায়খ আবু বকর জাকারিয়ার হাদীসের অর্থ ও জিহাদের সংজ্ঞায় ভ্রান্তি

 

পিডিএফ ডাউনলোড

শায়খ আবু বকর মুহাম্মাদ জাকারিয়ার একটি বয়ান। দেখুনঃ
https://www.youtube.com/watch?v=5qLEuTk1YHo

এখানে তিনি ২টি অপব্যখ্যা করেছেন…

এবং, চমৎকারভাবে নিজেকে নিজেই রদ্দ করেছেন… সকল সরকারি সালাফিদের কুযুক্তি তিনি নিজেই রদ্দ করে দিয়েছেন। আলহামদুলিল্লাহ!

অপব্যাখ্যা ১ঃ হাদিসে জিহাদ শব্দ আসেনি… এসেছে কিতাল শব্দ…অর্থাৎ, যুদ্ধ… পড়ুন হাদিসটি…

 

حَدَّثَنَا الْوَلِيدُ بْنُ شُجَاعٍ، وَهَارُونُ بْنُ عَبْدِ اللَّهِ، وَحَجَّاجُ بْنُ الشَّاعِرِ، قَالُوا حَدَّثَنَا حَجَّاجٌ، – وَهُوَ ابْنُ مُحَمَّدٍ – عَنِ ابْنِ جُرَيْجٍ، قَالَ أَخْبَرَنِي أَبُو الزُّبَيْرِ، أَنَّهُ سَمِعَ جَابِرَ بْنَ عَبْدِ اللَّهِ، يَقُولُ سَمِعْتُ النَّبِيَّ صلى الله عليه وسلم يَقُولُ ” لاَ تَزَالُ طَائِفَةٌ مِنْ أُمَّتِي يُقَاتِلُونَ عَلَى الْحَقِّ ظَاهِرِينَ إِلَى يَوْمِ الْقِيَامَةِ – قَالَ – فَيَنْزِلُ عِيسَى ابْنُ مَرْيَمَ صلى الله عليه وسلم فَيَقُولُ أَمِيرُهُمْ تَعَالَ صَلِّ لَنَا . فَيَقُولُ لاَ . إِنَّ بَعْضَكُمْ عَلَى بَعْضٍ أُمَرَاءُ . تَكْرِمَةَ اللَّهِ هَذِهِ الأُمَّةَ ” .

জাবির ইবন আবদুল্লাহ (রাঃ) থেকে বর্ণিত । তিনি বলেন, আমি নবী করীম (সাঃ)-কে বলতে শুনেছি, কিয়ামত পর্যন্ত আমার উম্মাতের একদল হকের উপর প্রতিষ্ঠিত থেকে বাতিলের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে থাকবে এবং অবশেষে হযরত ঈসা (আঃ) অবতরণ করবেন।

(সহিহ মুসলিম :: বই ১ :: কিতাবুল ঈমান অধ্যায় ::হাদিস ২৯৩/ ২৯২ ইসলামিক ফাউন্ডেশন)

 

… অর্থাৎ, হাদিসের অর্থই তিনি হয় জানেন না অথবা জালিয়াতি হয়েছে… আল্লাহ্‌ তা’আলাই প্রকৃত সত্য জানেন।

আনন্দের বিষয় হচ্ছে, এই হাদিসের কিতালের সাথে রাষ্ট্রের কোনো সম্পর্ক নেই তিনি স্বীকার করে নিয়েছেন!! আলহামদুলিল্লাহ! আল্লাহু আকবার!!

এতদিন উনারা সকলেই বলে এসেছেন যুদ্ধ হতে হবে রাষ্ট্রপ্রধানের অধীনে। রাষ্ট্রকে শর্ত হিসেবে উনারা ফরজে আইন জিহাদের জন্যও সাব্যস্ত করেছেন।

আলহামদুলিল্লাহ! তিনি নিজের পূর্ববর্তী মত এবং সকল সরকারি সালাফিদের মতকে রদ্দ করে পরিষ্কার করে দিলেন যে, এই হাদিসের কিতালের সাথে রাষ্ট্রের কোনো সম্পর্ক নেই…

হাদিসে যেমন এসেছে “উম্মতের একটি দল” ! রাষ্ট্র নয়… (তিনি কথাটি একাধিকবার বলেছেন। তাই মুখ ফসকের বেরিয়েছে এমন বলার সুযোগ দেখছি না!)

আল্লাহ্‌ তা’আলা শায়খ আবু বকর মুহাম্মাদ জাকারিয়াকে উত্তম প্রতিদান দিন।

 

অপব্যখ্যা ২ঃ

আশ্চর্যের বিষয় হচ্ছে নিজেকে সালাফি দাবী করলেও উনি জিহাদের এমনসব মুলহিদি অর্থ করছেন যা কেবল মাত্র তাবলীগী, ভ্রান্ত সুফি এবং ইখওয়ানি-জামাতি-চরমোনাই গোষ্ঠী করে থাকে…

জিহাদের এমন অপব্যখ্যা সালাফিদের থেকে এই প্রথম পেলাম… আল্লাহ্‌ তা’আলার কাছে এমন তাহরিফ থেকে আশ্রয় চাই…

চলুন দেখা যাক সালাফদের ব্যখ্যায় জিহাদের সংজ্ঞা –

১) হানাফি ফিকহের আলোকে,
الجهاد بذل الوسع والطاقة بالقتال في سبيل الله عزوجل بالنفس والمال واللسان وغير ذلك
অর্থ, ‘জিহাদ হলো আল্লাহর পথে জান, মাল, জবান ইত্যাদির সর্বশক্তি দিয়ে (কাফিরের মোকাবেলায়) যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়া।’
(বাদায়ে ওয়াস সানায়ে, ৬ষ্ট খন্ড, ৫৭ পৃষ্ঠা)
.
২) শাফেঈ ফিকহের আলোকে
الجهاد بذل الجهد في قتال الكفار لاعلاء كلمةالله
অর্থ, ‘জিহাদ হলো আল্লাহর বাণী সমুন্নত করার জন্য কাফিরদের মোকাবেলায় যুদ্ধের ময়দানে সর্বশক্তি ব্যয় করা ।’
(ফাতহুল বারী শরহে বুখারী, ৭ম খন্ড, ৪র্থ পৃষ্ঠা )

৩) মালেকি ফিকহের আলোকে,
الجهاد قتال المسلم كافرا غير ذي عهد لاعلاء كلمةالله
অর্থ, ‘জিহাদ হলো যে সকল কাফেরদের সাথে মুসলমানরা চুক্তিবদ্ধ নয় তাদের সাথে যুদ্ধ করা।’
(আশ-শারহুস সগীর, বাবুল জিহাদ)

৪) হাম্বলি ফিকহের আলোকে,
الجهاد قتال الكفار
অর্থঃ “জিহাদ হচ্ছে কাফিরদের সাথে যুদ্ধ করা।” (মাতালিবুন্নূহা)
=======

দ্রস্টব্য, উক্ত অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার এস এম রোকন উদ্দিন উপস্থিত ছিল…

…আল্লাহই প্রকৃত কারণ ভালো জানেন… কেননা একজন আহলুল ইলমের (যিনি কি না আবার তাফসিরও লিখেছেন!) কাছ থেকে এমন অদ্ভুত কথাবার্তা আশ্চর্যজনই বটে!!

যাই হোক!

যার ইচ্ছা হয় হিদায়াতের অনুসরণ করুক। এবং যার ইচ্ছা হয় পথভ্রষ্ট হোক!

আল্লাহুম্মা ফাশহাদ! আলা হাল বাল্লাগতু!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *